IMG-LOGO

বুধবার, ১৪ই এপ্রিল, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১লা বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

× Education Board Education Board Result Rajshahi Education Board Rajshahi University Ruet Alexa Analytics Best UK VPN Online OCR Time Converter VPN Book What Is My Ip Whois
নিউজ স্ক্রল
মিসরে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা, নিহত ২০আবদুল মতিন খসরুর মৃত্যুতে মেয়র লিটনের শোকচলে গেলেন সাবেক মন্ত্রী মতিন খসরুসাবেক আইনমন্ত্রী মতিনের মৃত্যুতে এমপি এনামুলের শোকএত টাকা কী করে দেবেন উমর আকমল!খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় নগর ছাত্রদলের দোয়া মাহফিলরাজশাহীতে রাস্তার ওভার লে কার্পেটিং কাজ পরিদর্শনে মেয়র লিটনএক নম্বরে বাবর আজমলকডাউনের প্রথম দিন রেকর্ড মৃত্যুকোয়ারেন্টাইনে অভীনেতা শাহরুখ খান‘সম্মিলিত শক্তি দিয়ে রুখব প্রাণঘাতী করোনাকে’রাজশাহী জেলা পুলিশের অভিযানে আটক ১৩‘ফোন করলেই চিকিৎসক যাবে রোগীর বাড়ি’২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু ব্রাজিলেপ্রেমের ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাড়িঘর-মন্দির ভাঙচুর
Home >> >> বাঘায় ২৮ জনের আত্মহত্যার চেষ্টা, এর মধ্যে ২১ জন শিক্ষার্থী

বাঘায় ২৮ জনের আত্মহত্যার চেষ্টা, এর মধ্যে ২১ জন শিক্ষার্থী

ধূমকেতু প্রতিবেদক, নুরুজ্জামান, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় উদ্বেগ জনক হারে বেড়ে চলেছে আত্মহত্যা চেষ্টার প্রবনতা। ইদানিং পত্রিকার পাতা উল্টালেই কমবেশি আত্মহননের নিষ্ঠুর সংবাদ চোখে পড়ে। সমাজ বিশ্লেষক ও মনোবিজ্ঞানীরা বলছেন, যখন কোনো ব্যক্তির জ্ঞান-বুদ্ধি, বিবেক ও উপলব্ধি-অনুধাবন শক্তি লোপ পায়, অসুস্থ হয়ে নিজেকে অসহায়-ভারসাম্মহীন মনে করে, ঠিক তখনই ধর্ম-কর্ম ভুলে মানুষ আত্মহত্যা করে জীবনের জ্বালা মেটায়। যাদের বয়স ৪০ থেকে ৭০ এর মধ্যে।

কিন্তু বাঘায় তার উল্টো চিত্র। এখানে গত দেড় মাসে যারা বিষপানে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়ে ব্যার্থ হয়েছে তাদের সংখ্যা ২৮ জন। এদের মধ্যে ২১ জন শিক্ষার্থী। যাদের বয়স ১৫ থেকে ২০ এর মধ্যে বলে নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের জরুরী বিভাগ। তাঁদের মতে, মনস্তাত্তি¡ক চাপ, অভাব-অনটন, দুঃখ-কষ্ট, লাঞ্ছনা এবং অপমান জনিত কারণেও দুর্বল চিত্তের ব্যক্তিরা আত্মহননের মধ্য দিয়ে মুক্তি খোঁজে। কিন্তু ১৫ থেকে ২০ বছর বয়স্ক ছেলে-মেয়েদের বিষয়টা সম্পুর্ণ ভিন্ন। তাদের আত্মহত্যার চেষ্টায় উদ্বিগ্ন হচ্ছেন অভিভাবক মহল।

সরেজমিন নিহত শিক্ষার্থীদের পরিবার ও সহপাঠীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিষন্নতা, শিক্ষাজীবন নিয়ে হতাশা, বন্ধুত্ব সম্পর্কের মধ্যে টানাপোড়েন এবং চাকরি নিয়ে অনিশ্চয়তা-সহ প্রনয় ঘটিত ব্যার্থতার কারণে তাঁরা বিষপানে আত্মহননের চেষ্টা চালিয়েছেন।

আত্মহত্যার ওপর বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার এক গবেষণায় দেখা গেছে, বাংলাদেশে প্রতিদিন গড়ে ৩০ জন মানুষ আত্মহত্যা করে। এদিক থেকে বিগত যে কোন সময়ের চেয়ে উদ্বেগজনক হারে বেড়েছে আত্মহত্যার প্রবণতা। পুলিশ সদর দফতরের হিসেব অনুযায়ী শুধু ২০১৭ সালেই বাংলাদেশে আত্মহত্যা করেছিল ১১ হাজার ৯৫ জন। যার গড় হিসেবে দাঁড়ায় দিনে ৩০ জন। এ সংখ্যা ২০১৬ সালে ছিল ১০ হাজার ৬শ’ এবং ২০১৫ সালে ছিল ১০ হাজার ৫শ’ জন। তবে আত্মহত্যার চেষ্টা করে-এর চেয়ে আরও ১০ গুণ বেশি।

বাংলাদেশ জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইন্সটিটিউটের অধ্যাপক ডা. তাজুল ইসলাম এর মতে, আত্মহত্যার দুটি ধরণ আছে (১) পরিকল্পিতভাবে এবং (২) আবেগতাড়িত হয়ে আত্মহত্যা। বাংলাদেশে অধিকাংশ তরুণ-তরুণীদের আত্মহত্যার ঘটনা আবেগতাড়িত। হতাশা, প্রেমে ব্যর্থ, পরীক্ষার ফল খারাপ, বাবা মায়ের সঙ্গে ঝগড়াসহ ছোটখাটো বিষয়েই আবেগতাড়িত হয়ে অনেকে আত্মহননের পথ বেছে নেন। এ দিক থেকে নারীদের মধ্যে আত্মহত্যার হার বেশি। এর পেছনে রয়েছে আমাদের আর্থ সামাজিক অবস্থা, নির্যাতন, ইভটিজিং, যৌতুক, সমভ্রমহানি, অবমাননা, অর্থনৈতিক সক্ষমতা না থাকা ইত্যাদি।

সার্বিক বিষয়ে বাঘা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রধান কর্মকর্তা (টি.এইচ.ও) ডা: রাশেদ আহাম্মেদ জানান, আত্মহত্যা চেষ্টার ঘটনা শুধু বাঘাতে নয়, এটি সারা দেশব্যাপী সংক্রমনে পরিনত হয়েছে। তিনি বলেন, বিশ্বে প্রায় ৩০ কোটিরও বেশি মানুষ বিষন্নতায় ভুগছেন। আর বাংলাদেশে বিষন্নতায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা মোট জনসংখ্যার ৪ দশমিক ৬ শতাংশ অর্থাৎ ৭৪ লাখেরও বেশি। বিগত দশ বছরে বিশ্বব্যাপী এ রোগের ব্যাপকতা বেড়েছে ১৮ শতাংশ।

তিনি বলেন, নানা কারণে একজন মানুষের মধ্যে বিষন্নতা সৃষ্টি হতে পারে। এর মধ্যে পারিবারিক কলহের কারণে সবচেয়ে বেশি মানুষ বিষন্নতা, একাকিত্ব কিংবা মানসিক রোগে আক্রান্ত হন। যেমন, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ব্যবধান সৃষ্টি হলে, বিশ্বাস না থাকলে, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কেউ অন্য কোনো নারী-পুরুষে আসক্ত হলে মানসিক অশান্তি থেকে রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ ধরনের পরিবারের ছেলে-মেয়েরাও মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে। তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধিসহ পরিবার-পরিজনকে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানান।

প্রিয় পাঠকবৃন্দ, স্বভাবতই আপনি নানা ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। যেকোনো ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন এই ঠিকানায়। নিউজ পাঠানোর ই-মেইল : dhumkatunews20@gmail.com. অথবা ইনবক্স করুন আমাদের @dhumkatunews20 ফেসবুক পেজে । ঘটনার স্থান, দিন, সময় উল্লেখ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। আপনার নাম, ফোন নম্বর অবশ্যই আমাদের শেয়ার করুন। আপনার পাঠানো খবর বিবেচিত হলে তা অবশ্যই প্রকাশ করা হবে ধূমকেতু নিউজ ডটকম অনলাইন পোর্টালে। সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ নিয়ে আমরা আছি আপনাদের পাশে। আমাদের ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করার জন্য অনুরোধ করা হলো Dhumkatu news

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *