IMG-LOGO

শুক্রবার, ৯ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

× Education Board Education Board Result Rajshahi Education Board Rajshahi University Ruet Alexa Analytics Best UK VPN Online OCR Time Converter VPN Book What Is My Ip Whois
নিউজ স্ক্রল
নিয়ামতপুরে জেলা প্রশাসকের সাথে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মতবিনিময়ধামইরহাটে সফিয়া স্কুলের ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিদায়ধামইরহাটে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ঢুকে নারী শিক্ষককে মারপিট, অফিস ভাংচুররোটারী ক্লাব অব মেট্রোপলিটন রাজশাহীর ১৯তম অভিষেকধামইরহাটে সাড়ে সাত হাজার কৃষকের মাঝে বীজ-সার বিতরণধামইরহাটে ৪ জয়িতা নারীকে সংবর্ধনারাজনৈতিক সহিংসতায় মার্কিন রাষ্ট্রদূতের উদ্বেগরিজভী-খোকনসহ ৪৪৫ জন কারাগারেরাজশাহীতে আন্তর্জাতিক প্রতিবন্ধী দিবস উদযাপনমান্দায় বীজ-সার বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধনশ্যুটিংয়ের কারণে চট্টগ্রাম যাননি কোহলিআপিল বিভাগে নতুন তিন বিচারপতিবিশ্বকাপের ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার খেলার দিন ঝড়-বৃষ্টির শঙ্কাইসরাইলি হামলায় ৩ ফিলিস্তিনি নিহতযুক্তরাষ্ট্রে গেলেন ২৪ রো‌হিঙ্গা শরণার্থী
Home >> >> অনুমতি ছাড়াই অটোরিক্সার ভাড়া বৃদ্ধি

অনুমতি ছাড়াই অটোরিক্সার ভাড়া বৃদ্ধি

ধূমকেতু প্রতিবেদক : রাজশাহী নগরীতে গত ১ জানুয়ারী থেকে বাড়ানো হয়েছে অটোরিক্সার ভাড়া। ভাড়া বৃদ্ধির কারণে গত তিনদিন ধরে একেরপর লাঞ্ছিত হচ্ছেন অটোরিক্সা চালকরা। ভাড়া বেশি চাওয়ায় যাত্রীদের সাথে প্রতিনিয়ত বাকবিতণ্ডা লেগেই থাকছে। নগরীর বিভিন্নস্থানে যাতায়াতের নতুন যে ভাড়ার চার্ট তৈরি করা হয়েছে তা নিয়ে রীতিমত যাত্রী ও অটোরিক্সা চালকের মধ্যে হাতাহাতি, মারপিটের ঘটনা এখন শহরজুড়ে। গত তিন দিনে অন্তত অর্ধশতাধিক অটোরিক্সা চালক, যাত্রীদের হাতে লাঞ্ছিত হয়েছেন।

বলাই চলে ভাড়া নিয়ে মারমুখি আচরণ করছেন যাত্রী ও অটোরিক্সা চালকরা। বিশেষ করে ভাড়া বৃদ্ধি করা হলেও অটোরিক্সা চালকদের প্রমানস্বরুপ কোনো কাগজপত্র নেই। শুধু মাত্র সমিতির তৈরি করা ভাড়ার চার্ট ছাড়া চালকদের কাছে ভাড়া বৃদ্ধির কোনো কাগজপত্র নেই। রাসিক বলছে, সমিতির পক্ষে স্মারকলিপি দেয়া হলেও তাদের ভাড়া বৃদ্ধির বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। যদি তারা ভাড়া বেশি নিয়ে অটোক্সিা চালায় তাহলে সেটা অবৈধভাবে চালাচ্ছেন।

জানা গেছে, গত ডিসেম্বরের নগরীতে তিন চাকার অটোরিক্সার ভাড়া বৃদ্ধিার জন্য অটোরিক্সা মালিক সমিতির পক্ষে সংবাদ সম্মেলন করা হয়। এরপর রাসিক মেয়র, স্থানীয় এমপি, জেলা প্রশাসক, পুলিশ কমিশনারের দফতরে স্মারকলিপি দেয়া হয়। সমিতির পক্ষে আগেই ঘোষণা করা হয় পহেলা জানুয়ারী থেকে নগরীতে চলাচল করা অটোরিক্সার ভাড়া বৃদ্ধি করা হবে। ঘোষণা অনুযায়ী পহেলা জানুয়ারী থেকে সকল রুটের ভাড়া ৫ টাকা প্রতি কিলোমিটার হিসাবে নিয়ে যাত্রী বহণ করা হচ্ছে। আর এই ভাড়া বৃদ্ধি করার পর থেকে নগরীতে অটোরিক্সা চালক ও যাত্রীদের মধ্যে চলছে হাতাহাতি, ঘটছে লাঞ্ছিতের ঘটনা। জানা গেছে, ভাড়া বৃদ্ধির জন্য রাসিক মেয়রকে স্মারকলিপি দেয়া হলেও এখনো তা পরিষদে উঠেনি। জেলা প্রশাসনকে দেয়া হলেও সেখান থেকে ভাড়া বৃদ্ধির ব্যাপারে কোনো ধরনের মতামত দেয়া হয়নি। রাসিক নগরীতে চলাচল করা অটোরিক্সার লাইসেন্স থেকে শুরু করে যাবতীয় দেখভাল করলেও ভাড়ার বিষয়টি আমলে নেয়নি। যার কারণে ভাড়া বৃদ্ধির কোনো কাগজপত্রও রাসিক দেয়নি। এতে অটোরিক্সায় উঠার পর চালক অতিরিক্ত ভাড়া চাইলে যাত্রীরা সাথে সাথে রাসিকের কাগজপত্র দেখতে চাচ্ছেন। আর এসময় অটোরিক্সা চালক কাগজপত্র দেখাতে না পারায় তাকে করা হচ্ছে মারপিট ও লাঞ্ছিত। আবার অনেক অটোরিক্সা চালক যাত্রীদের সাথে খারাপ আচারণ করছেন। এতে বাধ্য হয়ে ও মান-সম্মানের ভয়ে ওইসব যাত্রী অটোরিক্সা চালকদের চাহিদামত ভাড়া দিয়ে দিচ্ছেন। কিন্তু ৮০ ভাগ যাত্রীর সাথে অটোরিক্সা চালকদের বাকবিতÐা হচ্ছে।

এদিকে, স্মারকলিপি দিয়েই ভাড়া বাড়ানোর জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করছেন সকল শ্রেণি পেশার মানুষ। কারণ অটোরিক্সা মালিক সমিতি ভাড়া বৃদ্ধির জন্য স্মারকলিপি দিলেও এখনো রাসিক বা জেলা প্রশাসন অনুমোতি দেয়নি। সমিতির পক্ষে ভাড়ার চার্ট তৈরি করে সেই ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। যার কারণে এই ভাড়া অনৈতিক ও অযৌক্তিক বলে মনে করছেন নগরবাসি। কারণ ভাড়া বৃদ্ধি করা হলে রাসিক থেকে অনমদিত হতে হবে। রাসিক জানিয়ে দেবে কোন রুটে কত ভাড়া আদায় করা হবে। এমনকি রাসিক থেকে প্রচারণারও ব্যবস্থা থাকার কথা। কিন্তু নগরীর অটোরিক্সা চালকদের বৃদ্ধি করা ভাড়ার ব্যাপারে কোনো ধরনের অনুমতি দেয়নি রাসিক। যার কারণে বিষয়টি নিয়ে কোনো মাথা ঘামাচ্ছেন না রাসিক কর্তৃপক্ষ।

অপরদিকে, ভাড়া বৃদ্ধির চার্ট নিয়ে সমিতির কর্তা ব্যক্তিরা ব্যবসা করছেন। সমিতির পক্ষে তৈরি করা চার্ট অটোরিক্সা চালকদের দেয়া হচ্ছে ৫০ টাকার বিনিময়ে। অটোরিক্সা চালকদের অভিযোগ ভাড়ার এই তালিকা নেয়া বাধ্যতামূলক। আর তালিকা প্রতি ৫০ টাকা দেয়াটাও বাধ্যতা মূলক। সবুজ নামের এক অটোরিক্সা চালক জানান, রাসিক এখনো নতুন ভাড়ার বিষয়ে কোনো কাগজপত্র দেয়নি। তারা প্রতিবছর বিভিন্ন ধরনের ট্যাক্স বৃদ্দি করছেন। কিন্তু আমাদের ভাড়ার ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। তিনি বলেন, সমিতির কর্তারাও চালকদের সাথে বিরুপ আচারণ করছেন। কারণ একটি চার্ট তৈরি করতে সর্বোচ্চ ১০ টাকার বেশি লাগার কথা না। কিন্তু চার্ট দেয়ার পর ৫০ টাকা দিতে হবে, যা বাধ্যতামূলক।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলা হয়, নগরীর অটোরিক্সা মালিক সমিতির সভাপতি শরিফুর ইসলাম সাগরের সাথে। তিনি বলেন, আমরা ভাড়া বৃদ্ধির জন্য স্মারকলিপি দিয়েছি। মেয়র বিষয়টি জানে কিন্তু ভাড়া বিষয়ে রাসিক থেকে কোনো ধরনের কাগজপত্র দেয়া হয়নি। তিনি বলেন চালকদের বলে দেয়া হয়েছে যাত্রী উঠানোর সময় অবশ্যই ভাড়া মিটিয়ে তুলতে হবে। এছাড়াও করোনা কালীন অবস্থায় অটোচালকরা ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন। যার কারণে ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়েছে।

এব্যাপারে রাসিকের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আবু সালে মোহাম্মদ নুর-ই-সাইদ জানান, অটোরিক্সা মালিক সমিতির পক্ষে স্মারকলিপি দেয়া হলেও ভাড়া বৃদ্ধির কোনো অনুমতি দেয়া হয়নি। বিষয়টি রাসিদের পরিষদের সভায় তোলার পর এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। তিনি আরো বলেন অটোরিক্সা চালকরা যদি যাত্রীদের কাছ থেকে ভাড়া বেশি নেয় তাহলে সেটা হবে অযৌক্তিক।

ধূমকেতু নিউজের ইউটিউব চ্যানেল এ সাবস্ক্রাইব করুন

প্রিয় পাঠকবৃন্দ, স্বভাবতই আপনি নানা ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। যেকোনো ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন এই ঠিকানায়। নিউজ পাঠানোর ই-মেইল : dhumkatunews20@gmail.com. অথবা ইনবক্স করুন আমাদের @dhumkatunews20 ফেসবুক পেজে । ঘটনার স্থান, দিন, সময় উল্লেখ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। আপনার নাম, ফোন নম্বর অবশ্যই আমাদের শেয়ার করুন। আপনার পাঠানো খবর বিবেচিত হলে তা অবশ্যই প্রকাশ করা হবে ধূমকেতু নিউজ ডটকম অনলাইন পোর্টালে। সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ নিয়ে আমরা আছি আপনাদের পাশে। আমাদের ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করার জন্য অনুরোধ করা হলো Dhumkatu news