IMG-LOGO

বৃহস্পতিবার, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

× Education Board Education Board Result Rajshahi Education Board Rajshahi University Ruet Alexa Analytics Best UK VPN Online OCR Time Converter VPN Book What Is My Ip Whois
নিউজ স্ক্রল
ভারতে একদিনে আক্রান্ত ৪৩৫০৯, মৃত্যু ৬৪০রামেকের করোনা ইউনিটে আরও ১৭ মৃত্যুচেয়ারম্যান মকবুলের ছেলে সোহাগের মৃত্যুতে জেলা আ.লীগের শোকসোহাগের মৃত্যুতে শ্রীপুর ইউনিয়ন আ.লীগের শোকচেয়ারম্যানের ছেলের মৃত্যুতে এমপি এনামুলের শোকপাবনায় বিএনপি অক্সিজেন সিলিন্ডার, হ্যান্ড সেনিটাইজার ও মাস্ক বিতরণপাবনায় আরটিপিসিআর ল্যাবের উদ্বোধনকরোনায় আক্রান্ত নগর আ.লীগ নেতা সোহেলকুষ্টিয়ায় ভাতিজার হাতে চাচা খুনকুষ্টিয়ায় গড়াই নদী থেকে অজ্ঞাত মহিলার লাশ উদ্ধাররেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে মেয়র লিটনের মতবিনিময়মাড়িয়া ইউনিয়নে আসকান চেয়ারম্যানের মাস্ক বিতরণত্রাণের স্লিপ চাওয়ায় বৃদ্ধাকে ধাক্কা, স্ত্রীসহ ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তারঅবশেষে হত্যার রহস্য উদঘাটন, স্ত্রীর পরকিয়ার বলি জলিলধামইরহাটে ফেন্সিডিলসহ ২ মাদক ব্যবসায়ী আটক
Home >> >> পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তির পর আটক ৫ মামলার আসামী জিল্লু সরদার

পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তির পর আটক ৫ মামলার আসামী জিল্লু সরদার

ধূমকেতু প্রতিবেদক, বাঘা : আড়ানী পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর ও পাঁচ মামলার আসামী জিল্লু সরদারকে আটক করেছে পুলিশ। আদালত থেকে ওয়ারেন্ট থাকায় শুক্রবার (২৫ জুন) সকালে তাকে আটক করা হয়। এ সময় পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তি করে পালানোর চেষ্টা করলে জিল্লু সরদারের দুই পায়ের হাটু এবং মুখের নিচের অংশ থুতনু ছিলে যায়। একই সাথে পুলিশের সার্টের বোতাম ছিড়ে যাওয়া সহ ব্যবহৃত মোটরসাইকেলের ক্ষতিসাধন হয় বলে উল্লেখ করেন স্থানীয় লোকজন।

লোকজন জানান, জিল্লু সরদার আড়ানী পৌর সভার ২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছিলেন। তাঁর পিতার নাম মৃত মোজাহার সরদার। বাড়ী পৌর এলাকার গোচর গ্রামে। তার পারিবারিক ঐতিহ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে এলাকাবাসীরা বলেন, তারা আপন এবং চাচাতো মিলে প্রায় ৪০ থেকে ৫০ জন ভাই রয়েছে। এ কারণে এলাকায় তাদের ব্যাপক প্রভাব এবং দাপট রয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার সর্তে একজন স্কুল শিক্ষক জানান, এই দাপটের কারনে তারা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জনের সাথে তুচ্ছ ঘটনা এবং ছোট-খাট বিষয় নিয়ে বিরোধ তথা সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। এমনি ভাবে বিভিন্ন সংঘাত এবং দাঙ্গা-হাঙ্গামার ঘটনায় সাবেক কাউন্সিলর জিল্লু সরদারের নামে বাঘা থানায় বেশকটি জি’ডি এবং একাধিক মামলা রয়েছে।

এদিকে জিল্লু সরদারের হাতে মারপিট ও লাঞ্চিত হওয়া ভুক্ত ভুগী গোচর গ্রামের মসলেম উদ্দিনের ছেলে জামাল উদ্দিন, একই এলাকার কপিল উদ্দিন, জয়নাল এবং চকর পাড়া গ্রামের কালু প্রাং এর ছেলে আক্কাস আলী অভিযোগ করে বলেন, তাদের অনেক বড় গোষ্টি। এ কারণে তারা মানুষকে-মানুষ মনে করেনা। যে কোন তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ওরা মানুষকে অসম্মান তথা লাঞ্চিত এবং মারপিট করে থাকে।

সর্বশেষ গোচর গ্রামে একটি মারামারি মামলায় ২ নং আসামী হয় জিল্লু সরদার। এ মামলায় অন্যরা জামিন নিলেও জিল্লু সরদার আদালতে হাজির না হওয়ায় তার নামে ওয়ারেন্ট ইস্যু হয়। এই ওয়ারেন্ট নিয়ে শুক্রবার বাঘার থানার উপ-পরিদর্শক (এস.আই) শাহালম একটি মোটরসাইকেল যোগে অপর একজন পুলিশ নিয়ে আড়ানী বাজারে সকাল সাড়ে ১১ টায় তাকে আটক করে।

এসময় জিল্লু সরদার পুলিশের সাথে ধস্তা-ধস্তির শুরু করলে (এস. আই) সাহালমের সাটের বোতাম ছিড়ে যায়। অতঃপর তাকে মোটর সাইকেলের মাঝখানে বসিয়ে থানায় নিয়ে আনার সময় সে মোটর সাইকেল থেকে ঝাঁপ দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ ঘটনায় জিল্লু সরদারের পায়ের দুইহাটু এবং মুখমন্ডলের নিচের অংশ থুতনু ছিলে যায় বলে উল্লেখ করেন ঘটনার প্রত্যক্ষ দর্শীরা।

বাঘা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জিল্লু সরদারের নামে আদালত থেকে ওয়ারেন্ট ইস্যু এবং থানায় ৫ টি মামলা থাকার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, আজ সকালে বাঘা থানা পুলিশ তাকে আটক করেছে। এ সময় পুলিশের সাথে সে ধস্তা-ধস্তি করে পালানোর চেষ্টা করলে তার হাটু এবং থতনু ছিলে যায়। একই সাথে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তার মোটর সাইকেলের ক্ষতি সাধন হয়।

প্রিয় পাঠকবৃন্দ, স্বভাবতই আপনি নানা ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। যেকোনো ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন এই ঠিকানায়। নিউজ পাঠানোর ই-মেইল : dhumkatunews20@gmail.com. অথবা ইনবক্স করুন আমাদের @dhumkatunews20 ফেসবুক পেজে । ঘটনার স্থান, দিন, সময় উল্লেখ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। আপনার নাম, ফোন নম্বর অবশ্যই আমাদের শেয়ার করুন। আপনার পাঠানো খবর বিবেচিত হলে তা অবশ্যই প্রকাশ করা হবে ধূমকেতু নিউজ ডটকম অনলাইন পোর্টালে। সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ নিয়ে আমরা আছি আপনাদের পাশে। আমাদের ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করার জন্য অনুরোধ করা হলো Dhumkatu news

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *