IMG-LOGO

শনিবার, ২০শে জুলাই ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
৫ই শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৩ই মহর্‌রম ১৪৪৬ হিজরি

× Education Board Education Board Result Rajshahi Education Board Rajshahi University Ruet Alexa Analytics Best UK VPN Online OCR Time Converter VPN Book What Is My Ip Whois
নিউজ স্ক্রল
কোটা নিয়ে আপিল শুনানি রোববার‘কেবল কোটা সংস্কারেই ফয়সালা হবে না’বেলকুচিতে ক্রীড়া সামগ্রী ও সেলাই মেশিন বিতরণঢাকায় মেট্রোরেল চলাচল বন্ধ‘শান্তিপূর্ণ সমাধানের দিকে এগোতে চায় সরকার’২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের এইচএসসি ও সমমানের সব পরীক্ষা স্থগিতহাসপাতালে মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদসোহেল-নিরব-টুকুসহ বিএনপির ৫০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলানন্দীগ্রামে পিইপির উদ্যোগে গাছের চারা বিতরণরাজশাহীতে দাঁড়াতেই পারেনি কোটা আন্দোলনকারীরাঅবরুদ্ধ পুলিশ সদস্যদের হেলিকপ্টার দিয়ে উদ্ধার করল র‌্যাবেরবোয়ালখালীতে নবাগত ইউএনও সাথে বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠীর নেতৃবৃন্দের মতবিনিময়শিক্ষার্থীদের সঙ্গে দুই মন্ত্রী দায়িত্বে আলোচনায় বসছে সরকার‘সরকারের নির্দেশনায় আন্দোলন দমনের চেষ্টা চলছে’পুলিশের ধাওয়া খেয়ে পানিতে ডুবে কোটা আন্দোলনের শিক্ষার্থীর মৃত্যু
Home >> প্রবাস >> লিড নিউজ >> ৫ লাখ অভিবাসীকে নাগরিকত্ব দেওয়ার ঘোষণা, বেআইনি বলছে ট্রাম্পশিবির

৫ লাখ অভিবাসীকে নাগরিকত্ব দেওয়ার ঘোষণা, বেআইনি বলছে ট্রাম্পশিবির

ধূমকেতু নিউজ ডেস্ক : অভিবাসীদের নিয়ে সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মন্তব্য ‘আপত্তিজনক’ বলে সমালোচনা করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি নভেম্বরের মার্কিন প্রেসিডেনশিয়াল নির্বাচনের আগে ৫ লাখ অভিবাসীকে নাগরিকত্ব দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। নির্বাচনের আগে বাইডেনের এমন পদক্ষেপ তার রিপাবলিকান প্রতিদ্বন্দ্বী ডোনাল্ড ট্রাম্পের গণনির্বাসনের পরিকল্পনার সম্পূর্ণ বিপরীত। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) বাইডেনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আগামী মাসগুলোতে এই প্রোগ্রামের বাস্তবায়ন শুরু হবে। তবে কী প্রক্রিয়ায় এবং কতদিনের মধ্যে সেসব হবে তা এখনো পরিষ্কার জানানো হয়নি।

কর্মকর্তারা জানান, বাইডেনের নতুন প্রোগ্রামের আওতায় আনুমানিক ৫ লাখ অভিবাসীকে নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। সেসব অভিবাসীদের গত ১৭ জুনের মধ্যে আমেরিকায় বসবাসের রেকর্ড কমপক্ষে ১০ বছর পূর্ণ হতে হবে। মার্কিন বাবা বা মায়ের সঙ্গে ২১ বছরের কম বয়সি প্রায় ৫০ হাজার শিশুকেও এ প্রোগ্রামের আওতায় নাগরিকত্ব দেওয়া হবে।

সাংবাদিকদের সঙ্গে ফোনে আলাপকালে বাইডেন কর্মকর্তারা বলেছেন, আগামী মাসগুলোতে এ প্রোগ্রামটি বাস্তবায়ন করা হবে। আর এ প্রোগ্রামের সম্ভাব্য অধিকাংশ সুবিধাভোগীই হবেন মেক্সিকান।

বাইডেনের এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন মেক্সিকোর প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওব্রাডর। মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের মেক্সিকান পরিবারের অভিবাসীদের নিয়মিত করার সিদ্ধান্তটি ‘খুবই ভালো খবর।’

এর আগে হোয়াইট হাউসের এক অনুষ্ঠানে মার্কিন-মেক্সিকো সীমান্তে অভিবাসী পরিবারগুলোকে আলাদা করার এবং যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ অভিবাসীদের সম্পর্কে উস্কানিমূলক ভাষা ব্যবহারের জন্য ট্রাম্পের সমালোচনা করেছিলেন বাইডেন। ট্রাম্প এসব অভিবাসীদের ‘আমাদের দেশের রক্ত বিষাক্ত’ করছে বলে মন্তব্য করেছিলেন।

ট্রাম্পের এমন মন্তব্যে আপত্তি জানিয়ে বাইডেন বলেন, সীমান্ত বা অভিবাসন নিয়ে আমি রাজনীতি করতে আগ্রহী নয়। আমি বরং তা ঠিক করতেই আগ্রহী। এরপরই অভিবাসীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এদিকে বাইডেনের এ উদ্যোগ আইনি চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে পারে এবং নতুন মেয়াদের প্রেসিডেন্ট এটি বন্ধ করার চেষ্টা করতে পারেন। টেক্সাসের গভর্নর গ্রেগ অ্যাবট এক বিবৃতিতে বলেছেন, নতুন এই প্রচেষ্টা ‘স্পষ্টভাবে বেআইনি’ এবং ‘ভোটের উদ্দেশ্যে’ করা।

গ্রেগ অ্যাবট একজন রিপাবলিকান। তার রাজ্যটি আদালতে অভিবাসন নীতি নিয়ে বাইডেনের বিরুদ্ধে লড়ছে।

৫ নভেম্বরের যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টশিয়াল নির্বাচনে দ্বিতীয় মেয়াদে লড়তে যাচ্ছেন ডেমোক্র্যাট নেতা বাইডেন। এর আগে দেশটির ক্ষমতা গ্রহণের সময় ট্রাম্পের অনেক বিধিনিষেধমূলক অভিবাসন নীতি পরিবর্তনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি। তবে মার্কিন-মেক্সিকো সীমান্তে অভিবাসী গ্রেফতার রেকর্ডমাত্রায় বেড়ে যাওয়ায় এ বিষয়ে কঠোর অবস্থান নেন তিনি।

চলতি মাসের শুরুর দিকে মার্কিন-মেক্সিকো সীমান্ত অতিক্রমকারী অধিকাংশ অভিবাসীকে আশ্রয়ের আবেদন করায় বাধা দেন বাইডেন। তার এমন পদক্ষেপ ট্রাম্পের সময়কার অভিবাসীদের আশ্রয় বিষয়ক নিষেধাজ্ঞা নীতিকেই প্রতিফলিত করেছিল। তখন বাইডেনের এমন নীতির সমালোচনা করেছিলেন অভিবাসন আইনজীবী ও কিছু ডেমোক্র্যাট।

আমেরিকানদের বিয়ে করেছেন এবং বৈধ ভিসায় দেশটিতে প্রবেশ করেছেন এমন অভিবাসীদের নাগরিকত্ব প্রদানের জন্য ইতোমধ্যেই একটি সুযোগ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এতে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই দেশটিতে অবৈধভাবে প্রবেশকারী অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে অন্য দেশে কয়েক বছর থাকার শর্ত রয়েছে। সে শর্ত পূরণ হলেই তবে যুক্তরাষ্ট্রে পুনরায় বৈধভাবে ফিরে আসার আবেদন করতে পারবেন তারা।

তবে নতুন প্রোগ্রামটির আওতায় অভিবাসী জীবনসঙ্গী এবং তাদের সন্তানদের কয়েক বছরের জন্য বিদেশ ভ্রমণ না করেই স্থায়ীভাবে বসবাসের আবেদন করার অনুমতি দেবে। এই নীতির ফলে একটি সম্ভাব্য দীর্ঘ প্রক্রিয়া এবং পারিবারিক বিচ্ছিন্নতা দূর হবে। আগামী মাসগুলোতে এ প্রোগ্রামটি চালু করার কথা রয়েছে। তবে অভিবাসী জীবনসঙ্গীদের স্থায়ী বাসস্থান পেতে ঠিক কত দিন সময় লাগতে পারে তা এখনো স্পষ্ট নয়।

স্থায়ীভাবে বসবাসের অনুমতি দেওয়া হলেই পরবর্তীতে মার্কিন নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবেন তারা। তবে জনসাধারণের নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে বিবেচিত বা যাদের অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার ইতিহাস রয়েছে তারা এ আবেদন করতে পারবেন না।

আরও নিউজ ও ভিডিও পেতে ক্লিক করুন :

ওয়েব সাইট : https://dhumkatunews.com/
ইউটিউব ভিডিও লিংক : https://www.youtube.com/@dhumkatunews/featured
টুইটার : https://twitter.com/dhumkatunews
ইন্সটেগ্রাম : https://www.instagram.com/dhumkatunews/
লিংকডইন : https://www.linkedin.com/in/dhumkatunews/
পিনটারেস্ট : https://www.pinterest.com/dhumkatunew

ধূমকেতু নিউজের ইউটিউব চ্যানেল এ সাবস্ক্রাইব করুন

প্রিয় পাঠকবৃন্দ, স্বভাবতই আপনি নানা ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। যেকোনো ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন এই ঠিকানায়। নিউজ পাঠানোর ই-মেইল : dhumkatunews20@gmail.com. অথবা ইনবক্স করুন আমাদের @dhumkatunews20 ফেসবুক পেজে । ঘটনার স্থান, দিন, সময় উল্লেখ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। আপনার নাম, ফোন নম্বর অবশ্যই আমাদের শেয়ার করুন। আপনার পাঠানো খবর বিবেচিত হলে তা অবশ্যই প্রকাশ করা হবে ধূমকেতু নিউজ ডটকম অনলাইন পোর্টালে। সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ নিয়ে আমরা আছি আপনাদের পাশে। আমাদের ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করার জন্য অনুরোধ করা হলো Dhumkatu news