IMG-LOGO

রবিবার, ১৬ই জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
২রা আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৯ই জিলহজ ১৪৪৫ হিজরি

× Education Board Education Board Result Rajshahi Education Board Rajshahi University Ruet Alexa Analytics Best UK VPN Online OCR Time Converter VPN Book What Is My Ip Whois
নিউজ স্ক্রল
রাজশাহীর ইমাম-মুয়াজ্জিনদের ঈদ ভাতা দিলেন মেয়র লিটন‘সেন্টামার্টিন নিয়ে গুজব ছড়ানো হচ্ছে’জি৭ শীর্ষ সম্মেলনে কী করবেন এরদোগান?দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারাজশাহী মহানগর আ.লীগ বর্ধিত সভামেয়র লিটনের সাথে বাঘা উপজেলা চেয়ারম্যানের সাক্ষাৎবাঘায় পশু বিক্রিতে ভাটাবাঘায় নির্বাচন পরবর্তী হামলা ভাংচুরের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলনরাণীনগরে কোরআন শরীফ বিতরণ প্রবাসীদেরচাঁপাইনবাবগঞ্জে ২০০ শত পরিবারকে ঈদ উপহার বিতরণফুলবাড়ীতে শেষ সময়ে জমে উঠেছে পশুর হাটআরাফাতের ময়দানে লাখ লাখ হাজিটানা বর্ষণ ও ভূমিধসে সিকিমে আটকা পড়েছেন ১০ বাংলাদেশিসবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারআক্রান্ত হলে আমরাও জবাব দেব : ওবায়দুল কাদের
Home >> নগর-গ্রাম >> গোবরচাঁপা হাটের পানি নিষ্কাশনের জন্য মাছ ব্যবসায়ীদের ঘর্মঘট

গোবরচাঁপা হাটের পানি নিষ্কাশনের জন্য মাছ ব্যবসায়ীদের ঘর্মঘট

ধূমকেতু প্রতিবেদক, বদলগাছী : নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার গোবরচাঁপা হাটের মাছ বাজারের পানি নিষ্কাশনের কোনও ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকায় মৎস্য ব্যবসায়ীরা করেছেন ধর্মঘট। হাটের দিন কোন মাছ বাজারে না আশায় মাছ কেনা হলো না হাটে আসা হাজারো মানুষের। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার মথুরাপুর ইউপির গোবরচাঁপাহাট-বাজারে।

অভিযোগ সূত্রে ও স্থানীয় লোকজন দের কাছ থেকে জানা যায়, গোবরচাঁপাহাট মাছ বাজারের সরকারি জমি অবৈধভাবে ভাবে দখল করে পানি নিষ্কাশনের জায়গা ভরাট করে পাকা ঘর নির্মাণ করে সুবজ হোসেন নামের এক যুবক। ঘর নির্মাণ করায় পানি নিষ্কাশন সহ জনসাধারণের চলাচলের পথও সংকীর্ণ হয়ে পড়েছে। সবুজ হোসেনের জন্য প্রায় অর্ধশতাধিক মানুষের রোজি রোজগার প্রায় বন্ধের পথে বলে জানান স্থানীয় ব্যবসায়ী ও বাসীন্দারা। হাটের মাছ বাজারের পানি নিষ্কাশনের ড্রেনেজ ব্যবস্থার জন্য মথরাপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর একটি দরখাস্ত দেওয়ার পরেও কোনো ব্যবস্থা নেওয়্ হয়নি। তাই গোবরচাঁপা হাটের সকল মৎস্য ব্যবসায়ীরা সোমবার সকাল থেকে মাছ আমদানি ও বিক্রি বন্ধ ঘোষনা করেন। এতে অত্র এলাকার সকল মৎস্যজীবী, মৎসচাষীরাও যোগ দেন। এতে মারাত্মক ভাবে বেকায়দায় পরেযায় হাট বাজারে আসা হাজার হাজার মানুষ।

সরেজমিনে গোবরচাঁপা হাট গিয়ে বাজারের ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বললে তাঁরা জানান, ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর হাটের পানি নিষ্কাশন ও অবৈধ দখলদার উচ্ছেদের বিষয়টি জানানো হলেও আজ পর্যন্ত কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। তাই বাধ্য হয়ে আমরা বাজারে মাছ ক্রয়-বিক্রয়ের সাথে জড়িত লোকজন আজ সোমবার হাটের দিন হওয়া সত্তে¡ও ভোর থেকে মাছ বিক্রি বন্ধ রেখেছি। এতে হাটের মাছ বাজার অচল হয়ে পড়েছে।

মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির আন্দোলনের খবর ছড়িয়ে পড়লে ঘটনাস্থলে আসেন মথরাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ রানা।তিনি দ্রæতই পানি নিষ্কাশনের আশ্বাস দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন।

মৎস্য ব্যবসায়ী কাদির বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এমন অবস্থা চলছে কিন্তু কোনও ব্যবস্থা না হওয়ায় আজ আমরা মাছ বিক্রি বন্ধ রেখেছি।

মাছ ব্যবসায়ী সাব্বির বলেন, পানি নিষ্কাশনের ব্যাপারটি ইউপি চেয়ারম্যান, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি), উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর অভিযোগ দিয়েছি। এখনও পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা না হয়নি । তাই আমরা এই ধর্মঘট করছি।

স্থানীয় বাজারে আসা জাবারীপুরের শামসুল বলেন, হাটের দিন কাঁচাবাজার সহ মাছ কেনার জন্য এসে দেখি বাজারে মাছ নেই। ছেলে-মেয়ের বায়না আজ মেটাতে পারলাম না। বাধ্য হয়ে মুরগি ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছি।

গোবরচাঁপা হাটের কাঁচা মাল ব্যবসায়ী জামাল বলেন, মাছ না থাকার খবরটি আশেপাশে ছড়িয়ে পড়লে বাজারে লোকজন আসাও কমতে থাকে। মাছ না থাকলে হাট বাজার জমেনা। মাছ না থাকায় আজ আমাদের লোকসান গুনতে হবে।

এ ব্যাপারে হাট বাজারের ইজারাদার শাহীন বলেন, মাছ বিক্রি বন্ধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গেলে মাছ ব্যবসায়ীরা জানান, সবুজ নামের এক ব্যক্তি সরকারি সম্পত্তি নিজের মালিকানা দাবি করে মাছ বাজারের পানি চলাচল বন্ধ করেছে। শুণে সবুজের সাথে কথা বলেও কোন প্রকার সুরাহা হয়নি।

এ ব্যাপারে গোবরচাঁপা হাট বাজারের সভাপতি ও মথুরাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাসুদ রানা বলেন, মাছ বাজারের পানি নিষ্কাশনের জন্য অস্থায়ী ভাবে ড্রেন তৈরি করে দেওয়া হবে। পরবর্তীতে পাকা ড্রেনের ব্যবস্থা করা হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিয়া খাতুন বলেন, অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ ও পানি নিষ্কাশনের জন্য একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অপরদিকে এলাকার সচেতন মহল বলছেন, বদলগাছী উপজেলার মধ্যে বড় ৩ টি হাটের ভিতর গোবরচাঁপা হাট একটি। এই হাটের লক্ষ লক্ষ টাকা আদায় হয় সরকারি কোষাগারে। তারপর কেন হাটের উন্নয়ন হয়না। এই হাটের সংস্কারের অর্থ যায় কোথায়।

ধূমকেতু নিউজের ইউটিউব চ্যানেল এ সাবস্ক্রাইব করুন

প্রিয় পাঠকবৃন্দ, স্বভাবতই আপনি নানা ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। যেকোনো ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন এই ঠিকানায়। নিউজ পাঠানোর ই-মেইল : dhumkatunews20@gmail.com. অথবা ইনবক্স করুন আমাদের @dhumkatunews20 ফেসবুক পেজে । ঘটনার স্থান, দিন, সময় উল্লেখ করার জন্য অনুরোধ করা হলো। আপনার নাম, ফোন নম্বর অবশ্যই আমাদের শেয়ার করুন। আপনার পাঠানো খবর বিবেচিত হলে তা অবশ্যই প্রকাশ করা হবে ধূমকেতু নিউজ ডটকম অনলাইন পোর্টালে। সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ নিয়ে আমরা আছি আপনাদের পাশে। আমাদের ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করার জন্য অনুরোধ করা হলো Dhumkatu news